Monday, February 28, 2011

আমলাদের কারণে মানবাধিকার কমিশনে লোকবল নিয়োগ হচ্ছে না

মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান ড. মিজানুর রহমান বলেছেন, প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদনের পরও আমলাদের কারণে মানবাধিকার কমিশনে ২৮ লোকবল নিয়োগ দেয়া সম্ভব হচ্ছে না। আজ সোমবার রিপোর্টার্স ইউনিটিতে বাংলাদেশ সংখ্যালঘু মানবাধিকার প্রতিবেদন-২০১০ প্রকাশনা অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। গ্লোবাল হিউম্যান রাইটস ডিফেন্স ও বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব হিউম্যান রাইটস এ প্রকাশনার আয়োজন করে।

অনুষ্ঠানে ড. মিজানুর রহমান বলেন, লোকবল নিয়োগ বন্ধ থাকলেও মানবাধিকার কমিশনের কাজ বন্ধ থাকবে না। প্রয়োজনে দেশের ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে কার্যক্রম চালিয়ে যাবে মানবাধিকার কমিশন।
তিনি বলেন, মানবাধিকার কমিশনের কর্মীরা কোন ধর্ম বা গোষ্ঠীর নয়। তারা মানুষ হিসেবে কাজ করে যাচ্ছেন।

আটক অবস্থায় মৃত্যু: 'বাহিনীর সংশ্লিষ্ট সদস্যকে বরখাস্ত করা উচিত'

আটক অবস্থায় নির্যাতনে অপরাধীর মৃত্যু হলে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সংশ্লিষ্ট সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত করতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে অনুরোধ করেছেন মানবাধিকার কমিশন চেয়ারম্যান।

সোমবার রিপোর্টার্স ইউনিটিতে 'বাংলাদেশ সংখ্যালঘু মানবাধিকার প্রতিবেদন ২০১০' প্রকাশ উপলক্ষ্যে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ অনুরোধ করেন কমিশন চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান।

আটক অবস্থায় নির্যাতনে মৃত্যু রোধে আইন দরকার নেই- মন্তব্য করে তিনি বলেন,"যারা অপরাধীদের আটকাবস্থায় নির্যাতন করবে তাদের তাৎক্ষণিকভাবে বরখাস্ত করার সাজা দেওয়া হবে।

"এরপর তা প্রমাণিত হলে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা উল্লেখ করে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কাছে অনুরোধ জানাচ্ছি।"

মিজানুর বলেন, "অতীতে দেখা গেছে রাষ্ট্রীয় ছত্রছায়ায় থেকে সরাসরি সংখ্যালঘুদের ওপর অত্যাচার করা হয়েছে। এখন এটা অনেক কমে গেছে।"

গ্লোবাল হিউম্যান রাইটস ডিফেন্স এবং বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অব হিউম্যান রাইটস এ অনুষ্ঠান আয়োজন করে।

আয়োজকরা জানান, ২০১০ সালে সারা দেশে এক হাজার ছয়শ ৫০টি সংখ্যালঘুদের মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনা ঘটেছে।

অনুষ্ঠানে মূল প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন বিআইএইচআর'র নির্বাহী পরিচালক শাহানূর ইসলাম।

প্রকাশিত প্রতিবেদনে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ কে সংশোধন করে আন্তর্জাতিক মানের এবং নিরাপদ হেফাজতের নামে জেলে অন্তরীণ রাখার মতো নির্যাতনমূলক ব্যবস্থা বাতিল, অর্পিত সম্পত্তি আইন অবিলম্বে বাস্তবায়ন এবং অতি শিগগির এ ধরণের সম্পত্তি ফেরত দেওয়ার তালিকা প্রকাশ করা, গ্রাম্য সালিশ, ফতোয়া বন্ধ ইত্যাদি সুপারিশ করা হয়।

NHRC chairman suggests forming special committee to return vested properties to minority community

National Human Rights Commission (NHRC) chairman Prof Dr Mizanur Rahman on Monday urged the government to form a special committee to return the vested properties to the minority community.

“I recommend forming a special committee headed by Prof Abul Barakat, who is working in the field, to return the vested properties to the minority community,” he said at a function marking the release of human rights report at Dhaka Reporters Unity (DRU) in the morning.

Global Human Rights Defense (GHRD) and Bangladesh Institute of Human Rights (BIHR) jointly prepared the report, titled ‘Human Rights Report 2010: Minorities in Bangladesh’.

Chaired by BIHR president advocate Mohammad Alamgir, the function was also attended, among others, by GHRD observer in Netherlands advocate Rabindra Ghosh and general secretary of Bangladesh Hindu-Bouddha-Christian Oikya Parishad advocate Ranadas Gupta.

BIHR executive director advocate Shahanur Islam read out paper highlighting the salient aspects of the report.

Speaking as chief guest, Prof Mizanur Rahman recommended issuing a special circular by the Home Ministry with a view to maintaining law and order apart from protecting human rights in the country.

“I believe the issuance of such a special circular will help improve the human rights situation significantly,” he said.

The NHRC chairman said though Prime Minister Sheikh Hasina already gave a directive to appoint some 28 people in the Commission, it is yet to be implemented due to negligence of some bureaucrats.

He claimed that the human rights situation has been improving in the country since his appointment in the NHRC in July last year.

“We’ve been able to create mass awareness… extra-judicial killings have decreased at a visible rate. We want to bring extra-judicial killings to zero level,” he said.

CUSTODIAL DEATHS 'Accused should be suspended instantly'

Mon, Feb 28th, 2011 7:20 pm


The human rights watchdog chief has called for instant suspension of the accused lawmen as an initial measure to prevent custodial deaths.

Speaking on the unveiling of 'Human Rights Report 2010: Minorities in Bangladesh' at the Dhaka Reporters Unity on Monday, National Human Rights Commission chairman Mizanur Rahman urged the home minister to consider the matter urgently.

He commented that there was no need for a separate law to prevent custodial deaths if law enforcers, accused of torturing or killing criminals, were suspended instantly.

Final decision in this regard would be taken after investigation and other legal procedures, he suggested.

"I urge the home minister to publish a circular in this regard with provisions for further steps once the charges are proved," Rahman said.

He said that the state patronised torture on the minorities in the past, but the trend has lessened in recent years. The commission chief, however, provided no figure of previous years to justify his claim that violation have lessened in recent years.

The organisers said that around 1,650 human rights violations were committed against the minority in 2010.

Global Human Rights Defence and Bangladesh Institute of Human Rights (BIHR) jointly arranged the programme.

BIHR chief executive Shahanur Islam presented the 'Bangladesh Minority Human Rights report-2010'.

The report recommended upgrading Women and Children Repression Prevention Act– 2010 to international level, banning the system of torture keeping in prison in the name of secured custody, immediate implementation of Vested Property Act and preparing the list of returning these vested assets.

The report also recommended stopping rural court and Fatwa.

Wednesday, February 23, 2011

PRESS RELEASE: Press conference on publishing “Human Rights Report 2010: Minorities in Bangladesh”

Bangladesh Institute of Human Rights (BIHR) together with Global Human Rights Defence (GHRD )is going to organized a press conference on publish the “Human Rights Report 2010: Minorities in Bangladesh” on 28th February 2011 from 10 am to 1.00pm at VIP Lounge, Dhaka Reporters Unity, 8/4-A Toppkhana Road, Segun Bagicha, Dhaka

Tuesday, February 22, 2011

FORWARDED APEEAL:BANGLADESH: Arson attack on Jumma minority community in Rangamati, Chittagong Hill Tracts


Dear Friends,
Bangladesh Institute of Human Rights (BIHR) is forwarding the urgent appeal from Global Human Rights Defence (GHRD), Netherlands regarding Arson attack on Jumma minority community in Rangamati, Chittagong Hill Tracts.

Friday, February 18, 2011

STATEMENT: BIHR gravely concerns about the massive communal attack on Jumma villages by Bengali settlers.


On 17 February 2011, following a death, the Bengali settlers from Gulshakhali settler area of Gulshakhali union under Longadu upazila in Rangamati district in collaboration with Border Guard of Bangladesh (BGB) (formerly BDR) made a massive communal attack on Jumma villages of Gulshakhali and Rangi Para areas. It is learnt that at least 23 houses of Jumma villagers including one BRAC school were reportedly burnt to ashes in the attack while two Jumma students were seriously injured in another attack made at Tintilya launchghat in Longadu at noon. 

STATEMENT:BIHR gravely concerns about arson attacks in CHT

সুত্র: বিআইএইচআর/এস/০২/০২/১১                                                   তারিখ : ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০১১

বিবৃতি: পার্বত্য চট্রগ্রামে পাহাড়ি-বাঙালি সহিংসতায় বিআইএইচআর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছে।

বাংগালী সেটলার এর মৃত্যুকে কেন্দ্র করে আজ রাঙ্গামাটি জেলার লংগদু উপজেলাধীন গুলসাখালী ইউনিয়নের গুলশাখালী ও রাঙ্গীপাড়া এলাকায় নিরাপত্তা বাহিনীর প্রত্যক্ষ সহযোগিতায় সেটেলার বাঙালি কর্তৃক জুম্মদের গ্রামে সাম্প্রদায়িক হামলা ও ঘরবাড়ীতে অগ্নিসংযোগের ঘটনায় বাংলাদেশ ইন্সস্টিটিউট অব হিউম্যান রাইটস ( বিআইএইচআর ) তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছে।